সাজগোজ

শীতের দিনের মেকআপ! 

মেকআপ এর জন্যে শীতকাল সবথেকে বেস্ট। শীতের দিনে না স্কিন ঘেমে যায়; না মেকআপ সহজে নষ্ট হয়। শীতকালকে বিয়ের ঋতু বলা হয় কেননা এই সময় অনেক বিয়ের প্রোগ্রাম হয়ে থাকে আর বিয়ে মানেই একটু ভারি মেকআপ। পোশাকের সাথে মানিয়ে মেকআপ করলে পুরো সাজটাই ফুটে ওঠে। তাই শীতে আপনার সাজ কেমন হবে, সেটি যত্নের সাথে খেয়াল রাখুন। আপনার সময় ও প্রোগ্রামের উপর নির্ভর করবে আপনি কিভাবে সাজগোজ করবেন। শীতে সাজগোজ ও মেকআপের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন – 
 
 
শীতে বাইরের আবহাওয়া থাকে অনেক রুক্ষ। আর শীতকালে সূর্যের তাপ ও অতি বেগুনি রশ্মি ক্ষতি করতে পারে আপনার ত্বককে। তাই যখনই বের হবেন সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন এটি আপনার ত্বকে ময়েশ্চারাইজারের কাজও করবে। 
 


 
 
শীতে ত্বক অনেক শুষ্ক থাকে তাই মেকআপ শুরুর আগে ত্বকে লাগিয়ে নিন ময়েশ্চারাইজার। শুষ্ক ত্বকের জন্য অয়েল বেসড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন, তৈলাক্ত ত্বকের জন্য অয়েল ফ্রি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন ও কম্বিনেশন ত্বকের জন্য ভালো হয় শুধু টি জোনে অয়েল ফ্রি লাগিয়ে এবং বাকি অংশে অয়েল বেসড ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে পারেন। 
 

 
 

 
১. মেকআপ যদি হালকা করতে চান অথবা হালকা রাখতে চান তাহলে BB ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। বর্তমানে নামি দামি ব্রান্ডগুলো BB ক্রিম বের করেছে। এতে ময়েশ্চারাইজার ও ফাউন্ডেশনের সংমিশ্রণে তৈরি করা হয়েছে। এই ক্রিম থাকলে আপনাকে আলাদা করে ফাউন্ডেশন আর ময়শ্চারাইজার লাগাতে হবে না।হালকা মেকআপ করতে চাইলে ফাউন্ডেশনের বদলে বেছে নিন BB ক্রিম 
 


 
 
 
২. ঋতু বদলের সাথে সাথে অনেকের ত্বকের ধরন ও বদলায়। সেক্ষেত্রে অনেকেরই স্কিন উজ্জ্বল দেখায় অনেকের ডার্ক। যাদের উজ্জ্বল দেখায় তারা গ্রীষ্মে ব্যবহার করা ফাউন্ডেশন দিলে কালো দেখাতে পারে সেক্ষেত্রে অবশ্যই উজ্জ্বল শেড এর অথবা স্কিন টোনের সাথে মিলিয়ে ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন। শীতে ম্যাট ফিনিশের বদলে শাইন ফিনিশ এমন ফাউন্ডেশন বেশি কার্যকর ও সুন্দর দেখায়। এছাড়া আই লুকের জন্য ও ডার্ক সার্কেল, ব্রণের দাগ ও ডার্ক স্পট ঢাকতে বেছে নিন কন্সিলার 
 
 
 

 
৩. শীতে বেছে নিতে পারেন একটু হেভি ক্রিম কমপ্যাক্ট পাউডার। যার মধ্যে অয়েল কন্টেন্ট বেশি বিদ্যমান আছে। এর ফলে এটি আপনার ত্বককে অতিরিক্ত শুষ্ক করবেনা বরং ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখবে। ঠোঁট সাজানোর ক্ষেত্রে অবশ্যই দামি ব্র্যান্ডের লিপস্টিক ব্যবহার করবেন যা আপনার ঠোঁটের মান ভালো রাখবে। লিপস্টিক ব্যবহারের আগে ভালো মানের লিপ বাম বা ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করবেন। সেক্ষেত্রে আপনার লিপস্টিক টি সুন্দর দেখাবে ও ঠোঁট শুষ্ক ও ফেটে যাবেনা। চাইলে লিপস্টিকের বদলে ব্যবহার করতে পারেন লিপগ্লস 
 
 
 
 
 
৪. এরপর ব্লাশ দেয়ার পালা একটা কমপ্লিট লুক পেতে। শীতের মেকআপের প্রধান আইটেম হল ব্লাশ। শীতের ফ্যাকাশে ত্বককে রঙিন করতে বেছে নিন ব্লাশ। যাদের স্কিন কালার ফর্সা ও আন্ডারটোন পিংক তারা ব্যবহার করতে পারেন গোলাপি বা কোরাল শেড। হলুদ আন্ডারটোন ও চাপা রঙ হলে পিচ ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া টেরাকোটা শেডগুলো বেশি মানাবে।  
 
 
 
তারকালয়/১৭/১২/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article