সাজগোজ

শীতে হাতের সঠিক পরিচর্যা! 

শীতে আমাদের জীবনে আসতে শুরু করেছে নানা পরিবর্তন। এ সময় বাতাসের সঙ্গে ত্বকের আদ্রতাও কমতে থাকে। ফলে শুকনো হাওয়ায় ত্বক ফাটতে শুরু করে। বিশেষ করে শীতকালে হাত পা ফাটার বিড়ম্বনা পোহাতে হয় কমবেশি সবাইকে। তবে কিছুটা বাড়তি পরিচর্যার মাধ্যমে এ সময়েও হাত ও পায়ের ত্বককে সতেজ রাখার উপায় রয়েছে  
 
 
আজ আপনার জন্য নিয়ে আসলাম কিভাবে শীতে হাতের যত্ন নিবেন? 
 
 

হাতের যত্নে : 
 
শীতকালে হাতের আঙ্গুল নরম ও মসৃণ রাখতে সপ্তাহে একবার অলিভ অয়েল গরম করে আঙ্গুলে লাগান। 
 
হাতের ত্বক খসখসে হয়ে পড়লে লেবুর রসে এক চামচ মধু বা চিনি মিশিয়ে পুরো হাতে স্ক্রাব করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 
 
হাতের কনুইয়ের খসখসে বা দানা দানা ভাব দূর করতে পাকা কলা চটকে এর সাথে ২ চা চামচ চিনি মিশিয়ে নিন। চিনি গলে না যাওয়া পর্যন্ত মিশ্রণটা কনুইয়ে মাসাজ করতে থাকুন। 
 
অনেকের কনুইয়ের অংশ কালো দেখায় বলে চিন্তিত সেক্ষেত্রে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে লেবুর রসের সঙ্গে ১ চা চামচ চিনি মিশিয়ে ৫-৭ মিনিট স্ক্রাব করুন এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 
 
হাতের ত্বক ভালো রাখতে নিয়মিত মেনিকিউর করা উচিত। সেটা চাইলে ঘরেও সেড়ে নিতে পারেন। এজন্য প্রথমে নেইল পলিশ উঠিয়ে নখ সমান করে কেটে নিন। একটি পাত্রে শ্যাম্পু দিয়ে পানিতে মিনিট পাঁচ এক ভিজিয়ে রাখতে পারেন হাত দুটো। শ্যাম্পুর সাথে চিনি অথবা লবেন মিশিয়ে হাত দুটো ঘষে ঘষে শুকনো মরা চামড়া গুলো পরিষ্কার করুন। তোয়ালে দিয়ে মুছে ফেলুন হাত। এবার ভালো ব্র্যান্ডের ময়শ্চারাইজ বা লোশন দিয়ে মাসাজ করে করে হাতে এপ্লাই করুন। চাইলে লোশনের পরিবর্তে অলিভ অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন। 
 
 
জেনে নিন :  
 
হাত পা কখনোই ভেজা অবস্থায় রাখবেন না। মুছে ভেসলিন অথবা ময়শ্চারাইজার লাগান। 
 
মরা চামড়া টেনে তুলবেন না। 
 
যাদের ত্বক খুব বেশি শুষ্ক তারা ক্ষারযুক্ত সাবান ব্যবহার করবেন না।  
 
শীতের দিন ঘুমানোর আগে অবশ্যই হাতে ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে ঘুমাবেন। 
 
 
তারকালয়/১৫/১২/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article