সাজগোজ

শীতকালীন ফেস প্যাক ড্রাই স্কিনের জন্য!

ত্বকের ধরন অনুযায়ী ত্বকের যত্ন নেয়া উচিত। সেই সাথে শীতকালে ও গ্রীষ্মকালে ত্বকের যত্নেও কিছুটা পার্থক্য রয়েছে। শীতকালে ত্বক খুব বেশি ড্রাই থাকে তাই ত্বকের জন্য যে ফেস প্যাক গুলো ব্যবহার করবেন তা নিয়ে আসলাম আপনাদের জন্য! 
 
যে কোনো ফেস প্যাক এপ্লাই করার আগে ফেস কে রেডি করে নিন। ফেস রেডি করতে প্রথমত মেকআপ লাগানো থাকলে তা তুলে ফেলুন। এরপর গোলাপ জল কটনবাড দিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন যা টোনার হিসেবে কাজ করবে। 
 
 

 

ফেসিয়াল স্ক্রাব  
 
২ টেবিল চামচ কফি আর ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল দিয়ে স্ক্রাব টি তৈরা করে ফেলুন। এবার অল্প অল্প করে সম্পূর্ণ মুখে ৫ মিনিট স্ক্রাব করুন। এটা আপনার ত্বকের ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডস দূর করবে। এর সাথে আপনার ত্বকে জমে থাকা ময়লা ও মৃত কোষগুলি তুলে ফেলতে সাহায্য করবে। ত্বককে করবে মসৃণ। শীতের জন্য এটি একটি মাস্ট ট্রাই ফেসিয়াল স্ক্রাব 
 
 


 
কলার প্যাক 
 
শীতের রুক্ষতায় ত্বকের আদ্রতা হারিয়ে যায়। ত্বকের আদ্রতা ফিরিয়ে আনতে কলার কোন জুড়ি নেই। ১টি পাকা কলা অর্ধেক নিয়ে ভালো করে চটকে নিন এরপর এতে ১ টেবিল চামচ মধু ও ১ টেবিল চামচ মালাই দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর প্যাক ভালো করে সম্পূর্ণ মুখে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মধু অনেক বেশি হাইড্রেটিং হয়ে থাকে এমনকি এতে আছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামাটোরি প্রপার্টিজে যা ব্রনঅ্যাকনে থেকে মুক্তি দেয়। ত্বকের সার্বিক পুষ্টি দিতে সাহায্য করে এই প্যাকটি 

 


 

বেসন ফেস প্যাক  

শীতে ত্বকের যত্নে দাদি নানীদের টোটকা ব্যবহার করে দেখুন কতটা উপকার পাবেন। আগের কালের মানুষেরা বেসন আর হলুদ দিয়েই তাদের রুপচর্চায় করতেন। যা ব্যবহারে আসলেই অনেক কার্যকর। ২ টেবিল চামচ বেসন, ১ চা চামচ হলুদ, ১ টেবিল চামচ মিল্ক ক্রিম ও পরিমাণ মতো দুধ দিয়ে থিক পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার প্যাকটি সম্পূর্ণ মুখে ও গলায় এপ্লাই করুন। এরপর ১৫-২০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা শেষে মাসাজ করে করে তুলে নিন এরপর মুখ ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ভালো ধুয়ে ফেলুন। সাথে সাথেই দেখবেন স্কিন কতটা উজ্জ্বল আর মসৃণ দেখাচ্ছে। 
 
 
 
 
মুলতানি ও বিটরুট প্যাক 
 
১ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, ১ টেবিল চামচ বিটরুট পাউডার, ৩-৪ ড্রপ অ্যালমন্ড অয়েল ও ১ টেবিল চামচ টক দই একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। শীত হিসেবে স্কিন যেন ড্রাই হয়ে না পড়ে সেজন্য অ্যালমন্ড অয়েল ব্যবহার করা হয়েছে। অ্যালমন্ড অয়েল ত্বকের জন্য অনেক উপকারী এটি আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজ করবে। এছাড়া মুলতানি মাটি ও বিটরুট পাউডার এ আছে এমন সব গুনাগুন যা ত্বকের পিগমেনটেশনের সমস্যা দূর করে দিবে।  
 
 
 
তারকালয়/১৪/১২/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article