রেসিপি

কালোজামের রেসিপি

জগতের এমন কোনো মানুষ নেই যাদের মিষ্টান্ন জাতীয় খাবারের প্রতি লোভ সামলাতে পারে। আর যদি হয় বাঙালি তাহলে , সেটা তো এক নামে পরিচিত মিষ্টান্ন প্রেমী হিসেবে।
ওপার বাংলা এবং এপার বাংলা অথবা হোক সেটা ইন্ডিয়া ,এই তিনটি দেশের মানুষ বেশির ভাগই মিষ্টি জাতীয় বিভিন্ন খাবার তৈরি এবং খাবার খেতে খুবই ভালবাসে। যেমন ধরা যাক ,কলকাতার রসগোল্লা,বাংলাদেশের কুমিল্লার রসমাইল ,নেত্রকোনার বালিশ মিষ্টি অথবা ইন্ডিয়ার কালাজামুন বা কালো জাম!

Tarokaloy_roshogolla_balish_misti_kalojam_roshmalai

মিষ্টি জাতীয় খাবার প্রতি লোভ টা যেনো ছোট থেকে বড় বয়সের মানুষের জন্যে সামলানো একটি বড় বিপর্জয়ের বিষয়। কম বেশি সকলেই চায় মিষ্টি জাতীয় খাবার খেতে তাই সে বিষয় টি মাথায় রেখেই যদি ঘরোয়া ভাবে ,এবং স্বাস্থ্যকর উপায়ে বানিয়ে পরিবারের সদ্যদেরকে পরিবেশন করা হয় তাহলে আর খুশির আমেজ যেনো আরো দ্বিগুণ বেড়ে যায়।
সে উদ্দেশে বিবেচনা করেই আজকে tarokaloy আপনাদের জন্যে নিয়ে আসলো কালোজামের রেসিপি।
আসুন জেনে নেয়া যাক কি কি উপকরণ ব্যবহার করা হবে।

Tarokaloy_kalo_jam_recipe 

উপকরন-
১.পাউডার দুধ ১ কাপ পরিমাণ
২. ময়দা ২ টেবিল চামচ
৩.সুজি ২ চা চামচ
৪. বেকিং পাউডার (সোডা না) এক চা চামচ এর ৫ ভাগের ৩ ভাগ
৫. তরল দুধ পরিমাণ মত
৬.ফুড কালার ( ইচ্ছে অনুযায়ী)
৭. ঘি ১ চা চামচ

Tarokaloy_kalo_jam_recipe

#শিরা বানানোর রেসিপি
২ কাপ চিনি
১ কাপ পানি
#প্রণালি
প্রথমে একটি পাত্রে পাউডার দুধ এবং অন্যান্য উপকরন ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর তরল দুধ একটু একটু করে দিয়ে মিষ্টির ডো তৈরি করতে হবে। মনে রাখতে হবে ডো যাতে একদম পাতলা বা একদম শক্ত না হয়। মোটা মুটি আঠালো (আঙ্গুলের সাথে লেগে থাকলে) আপনার ডো রেডি।
এরপর একটু ঘি মেখে নিয়ে ডো থেকে মিষ্টি নিজেদের ইচ্ছে মত আকার তৈরি করে নিতে পারে ।
মিষ্টি বেশি বড় রাখা যাবে না, মিনিমাম একটি সাইজ করতে হবে,কারণ ভাজার পর ফুলবে এবং শিরাই দেওয়ার পর এর সাইজ ডাবল হয়ে যাবে।
এরপর একটি পাত্রে তেল নিয়ে তাতে হালকা আঁচে অর্থাৎ তেলে আঙ্গুল দেওয়া যায় এমন সহনীয় ,সেভাবে
(বেশি গরম হওয়া যাবেনা)।
মিষ্টি গুলা একে একে একটু দুরত্ব রেখে তেলে দিয়ে মিডিয়াম আঁচ এ ভাজতে হবে।

এরপর ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে কালার হওয়া পর্যন্ত ভাজতে হবে।
এরপর মিষ্টি গুলা উঠিয়ে ঠান্ডা হতে দিতে হবে।
#শিরা তৈরির প্রণালী
একটি পাত্রে চিনি এবং পানি মিডিয়াম আঁচ এ জাল দিতে হবে।
এরপর চিনির পানি সিদ্ধ হয়ে আসলে সেখানে ঠান্ডা হওয়া মিষ্টি গুলা একে একে দিতে হবে।
১০ মিনিট এর মত মিষ্টি গুলো শিরার মধ্যে জালে রাখতে হবে
এবং পরবর্তীতে মিষ্টি গুলা শিরা সহ চুলা থেকে নামিয়ে শিরায় আরো ২ ঘণ্টার মত ভিজিয়ে রাখতে হবে।
2 ঘণ্টা পর আপনার কালোজাম খাবারের জন্য প্রস্তুত।
পরিবেশন জন্যে কিছু ড্রি ফ্রুট নিজের পছন্দ মত নিয়ে কেটে কালোজাম এর সাথে পরিবেশন করুন

 

Tarokaloy ২০/০৮/২০২০ রিয়া

 

 

 

 

Previous ArticleNext Article