Uncategorized, সেলিব্রিটি বার্তা

রচনা ব্যানার্জি জানা অজানা কিছু তথ্য

তাকে বলা হয় চিরসবুজ। নিজের বয়সকে কিভাবে ধরে রাখতে হয় তা তিনি হলেন সেটার জলজ্যান্ত উদাহরণ। তার নাম তো সবাই জানেন এই তিনি হলেন বাংলার দিদি নাম্বার 1 রচনা ব্যানার্জি। তার দিকে তাকালে কেউ তার বয়স আন্দাজ করতে পারবেন না সহজে। ২০০০ সালে তিনি সর্ব প্রথম পা রাখেন রুপোলি পর্দার অন্তরালে। তারপর উপহার দিয়েছেন একের পর এক হিট ছবি।

tarokaloy_rachona_banarjee

তার জনপ্রিয়তা এত আকাশ চুম্বন করে যার দরুন তিনি অমিতাভ বচ্চনের সাথেও বলিউডে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও তিনি তামিল তেলেগু ছবিতেও অভিনয় কাজ করার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন তিনি। যার ফলে আজ তার অবস্থান এতোটা শীর্ষে।
জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকাকালীন তিনি নিজেকে সরিয়ে নেন লাইমলাইটের থেকে। এরপর থেকে তিনি জিবাংলায় দিদি নং 1 সঞ্চালনার দায়িত্ব পান। ধীরে ধীরে তিনি হয়ে ওঠেন বাংলার প্রতিটা ঘরের দিদি নং 1। প্রতিদিন বিকেল ৫ টায় বাংলার প্রতিটা ঘরের ড্রয়িং রুমে বেজে ওঠে দিদি নং 1। যে শো থেকে অনুপ্রাণিত হন বাংলার হাজার হাজার মেয়ে।

tarokaloy_rachona_banarjee

শুধু ক্যামেরায় সামনে নয় তিনি তার স্যোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে যথেষ্ট অ্যাক্টিভ রচনা ব্যানার্জি। নিজের নানারকম ফটোশ্যুট এবং ইনস্টা রিলের মাধ্যমে তিনি মাতিয়ে রাখেন তার অনুগামীদের। এইযে রিল লাইফে কতোটা হাসি খুশি তিনি ,বাস্তব জীবনে তিনি কি সত্যি এমন খোসমেজাজের? তার জীবনে কি কোনো কষ্ট নেই? অভিনেত্রী ভেতরে কতটা ভালো আছেন?এসব প্রশ্ন প্রায় সময় তারা দেয় তার ভক্তদের।

tarokaloy_rachona_banarjee

প্রসঙ্গমত ওড়িয়া সিনেমায় অভিনয় করার সময়েই তিনি তার জীবনের কিছুটা উথাল পাতাল সময় পার করে কারণ। ওড়িয়া ছবির নায়ক সিদ্ধার্থ মহাপাত্রের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন অভিনেত্রী। এমনকি সেখান থেকে তিনি তার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন ‌। কিন্তু অবশেষে তার ভালোবাসার সংসার পরিপূর্ণতা পায় নি কেননা সেই বিয়ে বেশীদিন টেকেনি। তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

tarokaloy_rachona_banarjee

তার পর তিনি তার আপন ঠিকানায় ফেরে আসেন সেখানে এসেই তিনি পুনরায় আবারো ভালোবাসার স্বপ্ন দেখেন। কলকাতায় ফিরে এসে তিনি প্রবাল বসুর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের একটি ছেলেও আছে প্রণিল বসু। তবে তার এই বিয়েও মোটেই সুখের হয়নি‌। মূলত ছেলেকে সময় দেওয়ার জন্যই তিনি নিজেকে অভিনয় জগত থেকে সরিয়ে নেন। আগের বছর লকডাউনের সময় তিনি ছেলের সাথেই বেশী সময় কাটিয়েছেন। তার ছেলে প্রণীল এখন তার সবচেয়ে কাছের মানুষ।

Previous ArticleNext Article