Uncategorized, রেসিপি

পশ্চিম বঙ্গের মজাদার একটি রেসিপি

আজ এসেছি আলুর দম রেসিপি নিয়ে যা পশ্চিম বাংলায় বেশ জনপ্রিয় এবং পুর্ব বাংলাতেও দিনে দিনে এর চাহিদা বেড়ে চলছে। লুচি অথবা তেলে ভাজা পরোটা সাথে যে সবজি সবার আগে দরুন মানিয়ে যায় তাই হল আলুর দম। আলু এমন একটি উপাদান যেটা সকলের বাসায় সব সময় থাকে আর বাজারে হাতের নাগালেই থাকে আলু।আলু দিয়ে সহজেই বানানো যায় নানা রকমের মজাদার খাবারের আইটেম। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে মজাদার আলুর দম রান্নার রেসিপি জেনে নেয়া যাক।

আলুর দম তৈরি করতে যে যে উপকরন সমুহ লাগবে এবং প্রস্তুত প্রণালী।

উপকরণ
১/আলু আধা কেজি মত
২/পেয়াজ বাটা -১কাপ
৩/আদা বাটা -১ চা চামচ
৪/রসুন বাটা -১ চা চামচ
৫/জিরা গুড়া বা জিরা বাটা
৬/পাঁচ ফোড়ন- ১.৫ চামুচ
৭/আস্ত কাচা মরিচ -৫-৭ টি
৮/হলুদ ও গুড়া মরিচ-১চা চামচ
৯/তেল ও লবন
গরম মসলা
১০/২ চামুচ চিনি
১১/২টি দ্বার চিনি
১২/৪ টি সাদা এলাচ
১৩/তেতুলের কাথ বা মাড় দুই চা চামচ

তেতুলের কাথ তৈরি প্রণালী

দুইটি পাকা তেতুল সামান্য পানিতে কিছুক্ষন ভিজিয়ে রাখুন। তেতুল নরম হয়ে আসলে খোসা ও বিচি ছেড়ে নিন। এবার আলাদা করা তেতুল গুলো চিপিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেলো আপনার ঘনো তেতুলের কাথ ।

আলুর দম প্রস্তুত প্রনালী

• প্রথমে আলুগুলো স্বেদ্ধ করে নিন তবে খুব বেশি স্বেদ্ধ করা না কারন কয়েক দফায় রান্না করতে হয়। এবার স্বেদ্ধ করা আলুর খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে এর পর স্বাধ মতো লবন, হলুদ ও গুড়া মরিচ দিয়ে মেখে রাখুন।

• ১০ থেকে ১৫ মিনিট পরে একটি কড়াইএ তেল দিয়ে আলু গুলো ভেজে নিন।

• এবার আর একটি পরিস্কার কড়াইয়ে পরিমান মতো তেল দিয়ে তাতে পাঁচ ফোড়ন দিন । পাঁচ ফোড়ন ফুটে উঠলে তাতে পেয়াজ বাটা দিন। এবার কিছুটা সময় নিয়ে পেয়াজগুলো ভাজুন এবং তাতে এক এর পর এক করে জিরা বাটা, রসুন বাটা, আদা বাটা, গরম মসলা, হলুদ গুড়া, গুড়া মরিচ ও স্বাধ মতো লবন দিয়ে কষিয়ে নিন ।

• কষানো হয়ে আসলে তাতে ভেজে রাখা আলু গুলো ঢেলে দিন এবং কিছুক্ষন নাড়তে থাকুন । আমি আমার আলুগুলো গোটা গোটা রেখেছি, আপনি চাইলে ভেঙ্গেও নিতে পারেন ।

• কিছুক্ষন রান্নার পর পরিমান মতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন ।

• পানি কিছুটা কমে আসলে তাতে তৈরি করা তেতুলের কাথ ও আস্ত কাচা মরিচ দিয়ে দিন। যেহেতু তেতুল খুব টক তাই স্বাধ টাকে একটু মসৃন করতে কিছুটা চিনি ছড়িয়ে দিয়ে ঢেকে চুলার আঁচ কমিয়ে দিন। এবার পানি কমে আসলে এবং একটু একটু তেল দেখা গেলে নামিয়ে নিন ।

ব্যাস হয়ে গেছে আপনার মজাদার আলুর দম। এবার লুচি কিংবা পুরির অথবা পরোটা সাথে পরিবেশন করুন গরম গরম আলুর দম । এটি ভাতের সাথে সবজি হিসেবেও খেতে পারেন।

Previous ArticleNext Article