Uncategorized, সেলিব্রিটি বার্তা

করোনাতে গুরুতর অবস্থায় অপূর্ব, প্রয়োজন প্লাজমা থেরাপি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন টিভি পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার ফুসফুস ৩৫ শতাংশ আক্রান্ত। তাকে প্লাজমা থেরাপি দেয়া লাগবে।

tarokaloy_Ziaul_Faruq_Apurba_

বুধবার (৪ নভেম্বর) দুপুর নাগাদ অপূর্বর শরীরের খানিক উন্নতি হলে আইসিইউ থেকে সন্ধ্যা নাগাদ পাঠানো হয় কেবিনে। সেই আশার আলোতে খানিক শঙ্কা দেখা দিয়েছে বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সকালে।অপূর্বর চিকিৎসার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় থাকা নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটা নাগাদ বলেন, ‘ভাইয়ের শারীরিক অবস্থা আবার একটু খারাপ হয়েছে। চিকিৎসকেরা সকালে জানিয়েছেন, প্লাজমা লাগবে। সেটা সংগ্রহ করাটাও সহজ বিষয় নয়।

tarokaloy_Ziaul_Faruq_Apurba_

তবে আশার কথা, একটু আগে প্লাজমা পেয়েছি। এটাই এখন বড় স্বস্তির খবর।’ আরিয়ান জানান, চিকিৎসকরা বলেছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে অপূর্বর শরীরে প্লাজমা দেওয়া হবে। ধারণা করা হচ্ছে, এর মাধ্যমে ভালো ফল মিলবে।অন্যদিকে অপূর্বর দ্রুত সুস্থতা কামনা করছেন তার সহকর্মীরা। তার আরোগ্য কামনায় অন্যদের মতে দোয়া চেয়ে ৪ নভেম্বর ফেসবুকে একটি পোস্ট করেন অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী।

tarokaloy_Ziaul_Faruq_Apurba_

মেহজাবীন লিখেছিলেন– ‘আমাদের সকলের প্রিয় অপূর্ব ভাইয়া যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসতে পারেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’কিন্তু স্ট্যাটাসের পর পরই ঘটে রটনা কারণ ইতিবাচক ও নেতিবাচক মন্তব্যে ভেসে যায় সেই কমেন্ট বক্স। এমন পোস্টের নিচে এতসব নেতিবাচক মন্তব্য দেখে বিব্রত হয়েছেন মেহজাবীন। পরে এ বিষয়ে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অভিনেত্রী,মেহজাবীন বলেছেন,

Tarokaloy_mahjabin_chowdhury

‘নেতিবাচক মন্তব্য করার মতো কিছু আমি লিখিনি। তারা কী বুঝে মন্তব্য করছেন, সেটি আমি জানি না। এটা মন্তব্যকারীদের সমস্যা। কারণ এখানে খারাপ মন্তব্য করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আমি ভাবিনি কেউ এমন মন্তব্য করতে পারেন। তার পরও যারা নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন, তাদের কথায় মন খারাপ করিনি। আমার সহকর্মী অসুস্থ, তার সুস্থ হয়ে ওঠাই আমার আমাদের কাম্য’

tarokaloy_Ziaul_Faruq_Apurba_

বেশ কিছু দিন ধরেই অসুস্থ বোধ করছিলেন অভিনেতা অপূর্ব। শুটিংয়ে অনুপস্থিত ছিলেন। গেল সপ্তাহে সাগর জাহানের একটি নাটকের শুটিংয়ে অপূর্ব শেষ অংশ নেন। নাট্যনির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ান জানিয়েছেন, গত কয়েক দিন ধরে কাঁপুনি দিয়ে জ্বর অনুভব করছিলেন অপূর্ব। এর পর করোনার আরও কিছু উপসর্গ দেখা দিলে তিনি পরীক্ষা করান। গত ২ নভেম্বর পজিটিভ ফল আসে। এর পর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে গত ৩ নভেম্বরে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। সেদিন থেকেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এ অভিনেতা। এর পর থেকে কিছুই খেতে পারছেন না তিনি। শুধু বমি করছেন।

অপূর্বর সঙ্গে বহু নাটকে জুটি বেঁধে কাজ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। ‘বড় ছেলে’সহ বহু নাটকে এই দুই তারকা অনেক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে।

Previous ArticleNext Article