Uncategorized, সেলিব্রিটি বার্তা

আইসিইউ-তে আছে দিয়া মির্জার ছেলে

ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া এশিয়া প্যাসিফিক ২০০০ বিজয়ী দিয়া মির্জা। জন্মগত নাম দিয়া হ্যান্দ্রিজ। তাঁর বাবা নাম ফ্রাঙ্ক হ্যান্দ্রিজ এবং মা দিপা মির্জা। দিয়া মির্জার ৬ বছর বয়সে তাঁর বাবা-মা আলাদা হয়ে যান কিন্তু পরবর্তীতে তার মা আহমেদ মির্জাকে বিয়ে করেছিলেন ,এর পর থেকে আহমদ মির্জার উপাধি তাঁর নামে যুক্ত হয়েছিল। কিন্তু গল্পঃ এখানেই শেষ নয় কারণ দ্বিতীয় বিয়ের রীতি তাকেই ছাড়েনি।

Tarokaloy_actress_dia_mirza

প্রেমিক সাহিল সংঘকে ২০১৪ সালের অক্টোবরে হিন্দু সম্প্রদায় পদ্ধতিতে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন কিন্তু ২০১৯ সালে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। ২০২১ সালে ফেব্রুয়ারি ১৫ তে তিনি আবারো বিয়ের পিড়িতে বসেন। কিন্তু এতো জলদি তিনি সুখবর দিয়ে অবাক করবেন সেটা ভক্তদের চিন্তার বাহিরে। এর পর গত ১৪ মে সদ্য মা হয়েছেন বলে তিনি ঘোষণা করেন।
কিন্তু এ খবর অনেকেরই জানা ছিল যার দরুন প্রায় দুমাস পর ১৪ জুলাই, বুধবার মাতৃত্বের সুখবর দিলেন দিয়া মির্জা। সেই সাথে তিনি তার ছেলের একটি ছবি পোস্ট করেন তার সোসিয়াল মিডিয়াতে ,সেখানে ছেলের ছোট্ট দুটো হাতের ছবি শেয়ার করে দিয়া জানিয়েছেন, তাঁর আর বৈভব রেখির এই সন্তানের নাম আভায়ন আজাদ রেখি ।

Tarokaloy_actress_dia_mirza

মা হওয়ার পর গত দুমাস তাঁর উপর দিয়ে অনেক ঝড় বয়ে গিয়েছে, সেকথাও সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে তুলে ধরেছেন দিয়া । এলিজাবেথ স্টোনের একটি লাইন শেয়ার করে দিয়া জানিয়েছেন বেশকিছু সমস্যাার কারণে সি-সেকশনের মাধ্যম সময়ের আগেই জন্ম হয়েছে তাঁদের সন্তান আভায়ন আজাদ রেখির। ছেলেকে ‘মিরাকেল বেবি’ বলে উল্লেখ করে দিয়া লিখেছেন, প্রি-ম্যাচিউর শিশু হওয়ায় তাঁকে এখন নিওনেটাল আইসিইউ-তে রাখা হয়েছে।

Tarokaloy_actress_dia_mirza

চিকিৎসক, নার্সরা তাঁকে সুস্থ করে তুলতে আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। গর্ভাবস্থাকালীন দিয়ার শরীরে প্রাণঘাতী জটিলতা তৈরি হয়েছিল। মারাত্মক ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণের ফলে সেপসিস-র সমস্যা হয়েছিল তাঁর। তবে চিকিৎসকদের সময়োপযোগী হস্তক্ষেপে সি-সেকশনের মাধ্যমে তাঁদের সন্তান নিরাপদে জন্ম নিয়েছে।

Tarokaloy_actress_dia_mirza

দিয়া মির্জা আরও লিখেছেন, তাঁর দুমাসের শিশুপুত্রটিই মাতৃত্ব ও প্রকৃতির প্রকৃত অর্থ বুঝতে সাহায্য করেছে। তিনি লিখেছেন, এত খারাপ সময়ের মধ্যেও ছেলের মুখের দিকে তাকিয়েই তিনি শক্তি পাচ্ছেন। তাঁর সন্তান আভায়নকে যাঁর আপ্রাণ চেষ্টায় সুস্থ করে তুলছেন, তাঁদেরকেও ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি দিয়া। অভিনেত্রী লিখেছেন, ছোট্ট আভায়নকে কোলে নেওয়ার জন্য ওর বড় বোন সামাইরা, ঠাকুমা দাদু অপেক্ষা করে রয়েছেন।

প্রসঙ্গত গত ফেব্রুয়ারি মাসে ব্যবসায়ী বৈভব রেখির সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন দিয়া মির্জা। বিয়ের কিছুদিন পর ১ এপ্রিল মা হওয়ার সুখবর সকলকে জানান অভিনেত্রী।

Previous ArticleNext Article