সাজগোজ

রুপচর্চায় চন্দনের ব্যবহার! 

চন্দন হলো রুপচর্চার আভিজাত্য! রুপচর্চায় চন্দন যুগ যুগ ধরে পরিচিত। প্রাচীন কালে রাণীদের রুপচর্চায় অন্যতম উপাদান ছিল চন্দন। চন্দনে আছে হাজারো গুনাগুন। বিভিন্ন রকম কসমেটিক্স ও সুগন্ধীতে চন্দন ব্যবহৃত হয়। ত্বকের বিভিন্ন সমস্যায় চন্দন বেশ উপকারী। এতে আছে অ্যান্টিব্যকটেরিয়াল উপাদান যা ব্রণ ও ত্বকের অন্যান্য সমস্যা কমাতে সাহায্য করে। ত্বকের কালো দাগ, ব্রণের দাগ, অন্যান্য সমস্যা দূর করে উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে চন্দনের জুড়ি নেই।
আসুন জেনে নেই আকর্ষণীয় ত্বকের জন্য চন্দনের নানান ব্যবহার ও প্যাক সমূহ।

 

 

চন্দন ও মধুর ফেসপ্যাকে 
 
১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ বেসন, ১ চিমটি হলুদ, এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। মুখ ও ঘাড়ে ভাল করে লাগান। ৩০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন। এটি খুব দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বকে একটি গোলাপি আভা নিয়ে আসবে। এমনকি আপনার ব্রনের সমস্যা পুরোপুরি কমে যাবে।

 

 

চন্দন ও মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক

১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়া, ১ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, ১/২ টেবিল চামচ লেবুর রস ও সামান্য গোলাপ জল দিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এটি ঘাড় ও মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের বলিরেখা দূর করে দিবে। ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে র্যাডিক্যল প্রতিরোধ করে বলিরেখা পড়া রোধ করে। ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়িয়ে তুলবে।

 

 

চন্দন ও দুধের ফেসপ্যাক

১ টেবিল চামচ দুধ, ১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়া, ১ চিমনি হলুদ এবং সামান্য গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। ২০-১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। শুষ্ক ত্বকের জন্য এটি অনেক কার্যকরী। এই প্যাক ত্বকের পিএইচ লেভেল ঠিক রাখে। ত্বকের রুক্ষতা দূর করার সাথে সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।

 

 

চন্দন ও অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক

১ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল এবং ১ টেবিল চামচ চন্দনের গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি ত্বকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের র‍্যাশ, জ্বালাপোড়া দূর করে দেবে।

 

 

চন্দন ও টমেটোর ফেস প্যাক

১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়া, ১ টেবিল চামচ টমেটোর রস, ১ টেবিল চামচ মুলতানি মাটি, কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। তৈলাক্ত ত্বকে এটি অনেক বেশি কার্যকরী। ত্বকের অতিরিক্ত তেল ও ময়লা দূর করে থাকে। ত্বকের লোমকূপ পরিষ্কার করে হোয়াইট হেডস, ব্ল্যাক হেডস দূর করতে সাহায্য করে।

 

 

এছাড়াও

  • লাল চন্দনের গুঁড়ার সঙ্গে নারিকেল তেল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এটি শুষ্ক ত্বকের জন্য কার্যকরী।
  • ফেসপ্যাকটি ত্বকে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। প্রাকৃতিক মইয়েশ্চারাইজারের কাজ করবে এটি।
  • চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে তৈরি করুন তৈলাক্ত ত্বকের ফেসপ্যাক। এটি ত্বক টানটান করতে সাহায্য করবে।
  • চন্দন গুড়ার সাথে দুধ মিশিয়ে নিয়মিত মুখে লাগাতে পারেন। এতে করে মুখের ছোপ ছোপ কালো দাগ দূর হবে।

 

তারকালয়/২৫/১০/১৮/রুপা

Previous ArticleNext Article