সাজগোজ

মসুর ডালের রুপচর্চা! 

সৌন্দর্য্যচর্চায় জন্য খুব বেশি কিছুর দরকার নেই। হাতের কাছের সহজলভ্য সব জিনিস ব্যবহার করেও আপনি হয়ে উঠতে পারেন অনন্য সুন্দর। যেমন ধরুন মসুর ডালের প্যাক লাগিয়ে আপনি হতে পারেন ফর্সা, কোমল ও সুন্দর ত্বকের অধিকারীদীর্ঘদিন যদি নিয়ম মেনে মুখে মসুরের ডালের প্যাক লাগান তাহলে সহজেই আপনার মুখের কালো ছাপ হয়ে যাবে। মসুরের ডালে উপস্থিত প্রোটিনঅ্যান্টি-অক্সিডেন্টকার্বোহাইড্রেডডায়াটারি ফাইবার, ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন এ, সি, ই, কে এবং থিয়েমিন নানাভাবে শরীরের উপকারে আসে। সেই সঙ্গে ত্বকের ক্ষতিকর উপাদানদের বের করে দিয়ে ত্বককে সুন্দর করে তুলতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। মসুর ডালের ফেস প্যাক লাগাতে শুরু করলে ত্বকে প্রোটিনের ঘাটতি দূর হয়। ফলে ত্বকের বয়স কমতে শুরু করে। সেই সঙ্গে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠতেও সময় লাগে না। 
 
 
 
১. ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে মসুর ডালের ফেস প্যাক  
 
যা যা লাগবে  

  • ১ চা চামচ মধু 
  • ১ চা চামচ মসুর ডাল বাটা 
  • ১ চা চামচ কাঁচা হলুদ বাটা  
     

প্রণালী  

সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে পরিস্কার মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পরে হালকা হাতে ঘষেঘষে তুলে ফেলুন। তারপর পানি দিয়ে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। 
আমাদের মধ্যে যাদের স্কিন ড্রাই মসুর ডাল তাদের জন্য হতে পারে দারুণ একটা সমাধান। মসুর ডাল আর মধু স্কিনের মৃতকোষ দূর করে স্কিন করবে নরম ও মোলায়েম। মধু আর মসুর ডাল এই উভয় উপাদান স্কিনের উজ্জ্বলতা বাড়াতে দারুন কাজ করে। 
 
 
 
 
২. মসুর ডালের উপটান 
 
যা যা লাগবে  

  • ১ টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা 
  • ১ টেবিল চামচ টক দই 
  • ১ টেবিল চামচ বেসন  
  • ১/২ চা চামচ হলুদ  
     

প্রণালী  
 
সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে মিশাতে হবে। ভালো করে মিক্স করে মুখে লাগাতে হবে। একদম শুকিয়ে গেলে হাত পানিতে ভিজিয়ে আলতো করে ম্যাসাজ করে তুলে ফেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি বডি ফেয়ারনেস বাড়াতেও সমানভাবে কাজ করে। যদি কেউ চায় ত্বকের রঙ উজ্জ্বল করতে, কার্যকরভাবে ব্রণ ও সান ট্যান দূর করতে তাহলে এই উপটান তাদের জন্যই। সাথে সাথে এটি স্কিনকে করবে খুব স্মুদ এবং লাবন্যময়  
 
 
 
 
৩. মসুর ডালের স্ক্রাবার  
 
যা যা লাগবে  

  • ১ টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা 
  • ১ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ  
     

প্রণালী  
 
মসুর ডাল বাটা ও দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এরপর অল্প অল্প করে নিয়ে মুখে ঘষে ঘষে ম্যাসাজ করতে হবে ২-৩ মিনিট। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ভালো করে। খেয়াল রাখবেন মুখে যেন একটুও লেগে না থাকে। 
যারা সিম্পল কিন্তু কার্যকর এক্সফলিয়েশন পছন্দ করেন, মসুর ডাল তাদের জন্য দারুন এক উপাদান। মুখের মৃতকোষ সরিয়ে মুখের ত্বক উজ্জ্বল আর স্মুদ করতে মসুর ডালের জুড়ি মেলা ভার। সেই সাথে দুধের ল্যাকটিক এসিড ত্বককে করে কোমল ও ফর্সা 
 
 
 
৪. ফেসিয়াল হেয়ার রিমুভাল প্যাক
 
 
যা যা লাগবে  

  • ১ টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা 
  • ১ টেবিল চামচ চালের গুড়া 
  • ১ টেবিল চামচ বেসন 
  • ১ চামচ লেবুর রস  
  • ১ চা চামচ আমন্ড অয়েল 
     

প্রণালী 
 
সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে হবে। ১০-১৫ পরে শুকিয়ে আসলে আলতো করে ঘষে ঘষে তুলে ফেলতে হবে। এই একই প্যাক বডির আনওয়ান্টেড হেয়ার রিমুভ করার কাজেও ব্যবহার করা যায়। এই প্যাকটি একবারেই যে সব অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেলবে তা নয় কিন্তু রেগুলার ব্যবহারে অবাঞ্ছিত লোমের গ্রোথ উল্লেখযোগ্য হারে কমিয়ে দিবে এবং মুখে থাকা অবশিষ্ট লোমগুলোকে একদম তুলে ফেলবে সেই সাথে ব্রণের দাগ হালকা করবে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে। 
 
 
৫. মসুর ডালের ফর্সাকারি ফেস প্যাক  
 
যা যা লাগবে  

  • ১ টেবিল চামচ মসুর ডাল বাটা  
  • ১ চা চামচ চালের গুড়ো  
  • ১ চা চামচ চন্দন পাউডার  
  • ১ চা চামচ মুলতানি মাটি  
  • ১ চা চামচ কমলালেবুর রস 
  • ২ চা চামচ শসার রস 
     

প্রণালী  
 
সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মেশাতে হবে। নরম পেস্ট বানিয়ে সম্পূর্ণ মুখে ও গলায় এপ্লাই করতে হবে। চাইলে পিঠে লাগাতে পারেন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি শুধু স্কিনের ব্রাইটনেস বাড়াবে না বরং যদি মুখে, গলায় ও পিঠে দাগ হয় যা দূর করতে সাহায্য করে এই প্যাকটি 
যদি চান এর সাথে স্কিনে আসুক গোলাপি আভা তাহলে মিশিয়ে নিন এক চা চামচ গোলাপের পাপড়ি বাটা।স্কিনের প্রেমে পড়ে যাবেন নির্ঘাত। 
 
 
 
তারকালয়/২/১০/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article