সাজগোজ

কিভাবে ঘরেই বানিয়ে ফেলতে পারেন অলিভ অয়েল বডি ওয়াশ?

সারাদিনের কর্ম ব্যস্ততার পর বাসায় ফিরে যখন ঠান্ডা পানি আর শাওয়ার জেল এর সাথে গোসল সেরে নিবেন নিমেষেই সব ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। ঠিক কি না? সবাই হয়ত শাওয়ার জেল ব্যবহার করেন না এর পরিবর্তে সাবান বেশি ব্যবহার করে থাকেন।কিন্তু শাওয়ার জেলের রিচ লেদারিং ফোম আর এরোমা(সৌরভ) অবশ্যই সাবান থেকে বহু গুনে ভালো।যাইহোক আপনাকে সেইসব ব্র্যান্ডেড শাওয়ার জেল ব্যবহার করতেই হবে তা বাধ্যতামূলক না। আপনি চাইলে এর চেয়ে ভালো শাওয়ার জেল ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন।  
 
 
কিভাবে অলিভ অয়েল শাওয়ার জেল তৈরি করবেন? 
 
যা যা উপকরণ লাগবে : 

 

মধু : 
 
মধু বরাবরই স্কিনের জন্য অনেক উপকারী। এটি আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড রাখে। এতে আছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল প্রপার্টিজ যা আপনার ত্বকের ইনফেকশন সাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। আপনি অবশ্যই কাচা মধু যুক্ত করবেন। 
 
 

অলিভ অয়েল : 
 
শাওয়ার জেল তৈরিতে অরগানিক ভার্জিন অলিভ অয়েল যুক্ত করবেন। 
 
 

লিকুইড কাস্টাইল সাবান(liquid castile soap) : 
 
শাওয়ার জেল তৈরিতে পরিষ্কারক কার্যক্ষমতার জন্য এই লিকুইড সাবান যুক্ত করতে হবে। 
 
 

এসেন্সিয়াল অয়েল(Essential oils) : 
 
বাজারে অনেক ধরনের এসেন্সিয়াল অয়েল পাওয়া যায়।রোজমেরি(rosemary) অয়েল বা পেপারমিন্ট(peppermint) অয়েল ব্যবহার করতে পারেন অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ইফেক্ট এর জন্য অথবা লেভেন্ডার(lavender) অয়েল ট্রাই করতে পারেন ক্লামিং ইফেক্ট এর জন্য। এসেন্সিয়াল অয়েল মুলত আপনাকে দিবে স্নিগ্ধ সৌরভ। তাই শাওয়ার জেল তৈরিতে এসেন্সিয়াল অয়েল অল্প পরিমাণে যুক্ত করবেন। 
 
 
 

যেভাবে তৈরি করবেন : 
 
প্রথমে একটি কাঁচের পাত্রে অলিভ অয়েল ও সামান্য পরিমাণ এসেন্সিয়াল অয়েল ভালো করে মিক্স করে নিন। এরপর বাকি উপকরণ গুলো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর ঢাকনা সহ একটি কাঁচের বয়ামে রেখে দিন। বয়ামটি সূর্যের আলো ও উত্তপ্ত যায়গা থেকে দূরে ঠান্ডা যায়গায় রেখে দিন। 
 


তারকালয়/০৭/১১/১৮/রুপা

Previous ArticleNext Article