সাজগোজ

চুল অকালে সাদা হওয়া থেকে মুক্তির উপায়! 

আজকাল দেখা যায় নারী-পুরুষ অনেকেরই অল্প বয়সে চুল সাদা হয়ে যায়। যা বরাবরই চোখে পড়ার মত। আর চুল পেকে গেলে বয়সের ছাপটা যেন একটু বেশি মনে হয়। সেইসঙ্গে নিজের ব্যক্তিত্ব খানিকটা ম্লান হয়ে পড়ে। সাধারণত বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চুল সাদা হয়। কিন্তু অল্প বয়সে কালো চুল সাদা হয়ে যাওয়াটা স্বাভাবিক নয়। নানা কারণে চুল সাদা হয়ে যেতে পারে।  
 
 
 
অকালে চুল সাদা হওয়ার কারন : 
 
-পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে

নিম্নমানের চুলের প্রসাধনী ব্যবহার করা

অত্যাধিক পরিমাণে রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার 

-নিয়মিত তেল না দেয়া

-ভাজা-পোড়া জাতীয় খাবার বেশি খাওয়া 

-পুষ্টিকর খাবারের অভাবে 

-অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করা 

-অতিরিক্ত হেয়ার ড্রাইয়ার এর ব্যবহার  

হরমোনের সমস্যা জনিত কারণে। 
 
 


কিভাবে অকালে চুল পাকার হাত থেকে মুক্তি পাবেন? আসুন জেনে নেই- 
 
 

১. হরতকি গুড়ো, মেহেদী গুড়ো, আমলকি গুড়োর সঙ্গে লেবুর রস ও নারিকেল তেল দিয়ে ভালো করে মিক্স করে চুলে লাগিয়ে ২ ঘণ্টা পরে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে কমপক্ষে ২-৩ দিন চুলে লাগালে চুল পাকা কমে যাবে। 
 
 
 

২. সপ্তাহে অন্তত তিন দিন সময় করে তেল মাসাজ করুন। 
নারিকেল তেল গরম করে মাথার তালুতে ভালো করে ম্যাসেজ করুন। এতে চুলের প্রয়োজনীয় পুষ্টির সঙ্গে সঙ্গে চুল সাদা হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে। 
 
 
 

৩. মেহেদী গুড়ো অথবা পেস্ট, ডিমের কুসুম ও টক দই একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে চুলে লাগালে চুল সাদা হওয়া কমে যাবে। মেহেদী ব্যবহারে শুধু চুল সাদা হওয়া থেকে রক্ষা করবে না বরং আপনার চুলকে ভিতর থেকে কালো করতে সাহায্য করবে। ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে অন্তত দুই বার ব্যবহার করতে পারেন। 
 
 
 


৪. চুলে যেন সরাসরি রোদ না লাগে কেননা সূর্যের বেগুনি রশ্মি চুলের জন্য অনেক ক্ষতিকর সেজন্য বাইরে বের হলে ছাতা, ক্যাপ অথবা ওড়না দিয়ে চুল ঢেকে বের হওয়া উচিত। এছাড়া অনুযায়ী নিয়মিত ভালো ব্রান্ডের শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। চুলের যেকোনো ক্রিম, জেল বা কন্ডিশনার ব্যবহারের সময় লক্ষ্য রাখবেন যেন মাথার স্কাল্পে না লাগে। স্কাল্পে লাগলে চুল পড়া ও সাদা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।  
 

 

 
৫. ১ চা চামচ মেহেদি পাতার গুড়া, ১ চা চামচ আমলকী গুড়া, ১ চা চামচ চা পাতা, ১ কাপ গরম পানি, ১/৪ চা চামচ লবন, ১/২ চা চামচ গোলাপজল,তার সাথে ১/২ চা চামচ লেবুর রস নিয়ে সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটা ৫-৬ ঘন্টা রেখে সমস্ত চুলে ভালো ভাবে লাগিয়ে ২ ঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি নিয়মিত ব্যবহারে আপনার চুলের রঙ আবার ফিরে পাবেন। 
 
 
 

৬. অতিরিক্ত খুশকির কারণে চুল সাদা হয়ে যায়। চুলের খুশকি রোধ করুন যতদ্রুত সম্ভব। এক্ষেত্রে আপনি নারিকেল তেলের সাথে মেথি গুড়া ও নিম পাতা গুড়া একসঙ্গে সামান্য চুলায় গরম করে মিশ্রনটি মাথার তালুতে মাসাজ করে ৩০ মিনিট রেখে দিন এরপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন ব্যবহার করে দেখুন ভালো ফল পাবেন।  
 
 
এছাড়া ধুমপান পরিহার করে নিয়মিত ৬ লিটার পানি পান করুন, সবুজ শাকসবজি ফলমূল ও পুষ্টিকর খাবার খাবেন। অকালে চুল পাকা বন্ধ হয়ে যাবে এমনকি চুল হবে সুন্দর ও ঝলমলে। 
 
 
 
তারকালয়/১০/১১/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article