সাজগোজ

হাত ও পায়ের কালো দাগ দূর করার প্রাকৃতিক উপায়! 

আমরা ত্বকের যত্নে খেয়াল রাখতে গিয়ে শরীরের অন্যান্য অঙ্গের প্রতি গুরুত্ব দেই না। এর ফলে শরীর অন্যান্য অংশ যেমন হাত পা কনুই ও হাঁটু। অনেকেরই হাতের কনুই ও পায়ের হাঁটু শরীরের স্বাভাবিক রং একটু কালচে বর্ণের হয়ে থাকে। এবং এটি অনেক পরিচিত সমস্যা যা আপনার সৌন্দর্যকে নষ্ট করে থাকে। সূর্যের আলো, শুষ্ক ত্বক, হরমোনাল সমস্যা, অতিরিক্ত ওজন ইত্যাদি নানা কারণে হাতের কনুই ও হাঁটুতে কালো দাগের হয়ে থাকে। আর এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ঘরোয়া কিছু উপায় নিয়ে এসেছি যা আপনার হাত পায়ের পাশাপাশি হাতের কনুই ও পায়ে হাঁটু ও পায়ের নিচের অংশের কালো দাগ দূর করবে। 
 
 

 

১. সুগার স্ক্রাব  
 
১ টেবিল চামচ চিনি  
১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল  
১ টেবিল চামচ লেবুর রস  
 
চিনি, লেবুর রস ও অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটা ৫ মিনিট একটানা হাতে ও কনুইয়ে এবং পায়ের হাঁটু ও নিচের অংশে স্ক্রাব করুন। এরপর ১৫ মিনিট রেখে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হাতের কনুই ও হাঁটুর কালো দাগ দূর করতে এই সুগার স্ক্রাব ব্যবহার করুন। চিনি ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন অন্তত একবার এই পদ্ধতিতে হাতের কনুই ও হাঁটু পরিষ্কার করুন। দ্রুত ফলাফল পাবেন। 
 
 
 
 
২. বেকিং সোডা 
 
১ টেবিল চামচ দুধ  
১ চা চামচ বেকিং সোডা  
 
দুধ ও বেকিং সোডা ভালো করে মিশিয়ে পেস্টটি কালো দাগ অথাৎ আক্রান্ত স্থানে মাসাজ করুন ৪-৫ মিনিট। শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ভালো করে। বেকিং সোডা প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে। হাতের কনুই ও হাঁটুর কাল দাগ দূর করতে শতভাগ কাজ করে। সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিন বার ব্যবহার করুন দাগ ধীরে ধীরে হলকা হয়ে যাবে। 
 
 
 
 
৩. অ্যালোভেরা 
 
১টি অ্যালোভেরা  
 
প্রথমে অ্যালোভেরাটি ধুয়ে টুকরো করে কেটে নিন। এবার টুকরো গুলো নিয়ে মাঝখান থেকে কেটে নিন। এরপর সরাসরি আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে ৫ মিনিট মাসাজ করুন। ২০ মিনিট রাখুন, এরপর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রাকৃতিক ভাবেই অ্যালোভেরা ত্বক উজ্জ্বল করে থাকে। এটি শুধু হাতের কনুই ও হাঁটুর কালো দাগই দূর করে না যেকোন ধরনের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। তাই ভালো ফলাফলের জন্য সম্ভব হলে প্রতিদিন এপ্লাই করুন তা না হলে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন অ্যালোভেরার রস এইভাবে ব্যবহার করুন। 
 
 
 
তারকালয়/১৯/১১/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article