সাজগোজ

কিভাবে কম্বিনেশন স্কিনের যত্ন নিবেন?

কম্বিনেশন স্কিন টাইপের ক্ষেত্রে কিভাবে এর যত্ন নিতে হবে সেক্ষেত্রে বিভ্রান্তি সৃষ্টি। প্রথমত, সব বিভ্রান্তি দূর করি। কম্বিনেশন স্কিনের টেক্সচার হয় সাধারণত দুই ধরনের হয়। তা হল আপনার টি-জোন হবে অতিরিক্ত অয়েলি এরই সাথে ত্বকের অন্যান্য যায়গা হবে অনেক ড্রাই। এ ধরনের স্কিনের যত্ন নেওয়া চ্যালেঞ্জের চেয়ে কম না। তাই আপনার কাজ সহজ করতে নিয়ে এলাম কিছু পদ্ধতি যা আপনার কম্বিনেশন স্কিনের কেয়ারের জন্য উপকার হবে।

 

 


প্রথমত

কম্বিনেশন স্কিন হিসেবে আপনার ত্বকে ভিন্ন ভিন্ন অংশে ভিন্ন ভিন্ন ট্রিটমেন্ট করা। প্রথমে চিহ্নিত করুন আপনার ত্বকের কোন অংশ তৈলাক্ত আর কোন অংশ ড্রাই বা শুষ্ক। ড্রাই অংশে ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করবেন, আর অয়েলি বা তৈলাক্ত অংশে তেল শোষক পদ্ধতি ব্যবহার করুন যা আপনার ত্বকের অতিরিক্ত তেল কমিয়ে দিতে সাহায্য করবে।

 

 


দ্বিতীয়ত

আপনার টি-জোনে একটা জেন্টল ক্লিনজার ব্যবহার করুন যা পোরস কে পরিষ্কার করে অতিরিক্ত তেল সরিয়ে দিবে। যা আপনার স্কিনকে ব্ল্যাকহেডস আর অ্যাকনে থেকে পরিত্রাণ দিবে। একটি ভালো মানের ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধোয়ার চেষ্টা করবেন সবসময়। যা আপনার ত্বকের ময়লা দূর করবে, অতিরিক্ত তেল নিঃসৃত হতে নিয়ন্ত্রণ করে ম্যাট ফিনিস লুক দিবে।

 

 

তৃতীয়ত

কম্বিনেশন স্কিন হিসেবে আপনার ত্বকের ড্রাই বা শুষ্ক অংশে পুষ্টি যোগাতে হালকা ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন যা আপনার ত্বককে দিবে সজীব ও উজ্জীবিত অনুভূতি। কম্বিনেশন স্কিন টাইপের ক্ষেত্রে ময়শ্চারাইজার হালকা ব্যবহার করা ভালো আর অবশ্যই ময়শ্চারাইজারটি যেন ওয়াটার বেইজ হয় এতে আপনার স্কিনের কোন সমস্যা বা ইরিটেশন করবেনা। বাজারে সব ধরনের স্কিন টাইপের জন্য ময়শ্চারাইজার পাওয়া যায়। কেনার সময় দেখে কিনবেন। কেননা ময়শ্চারাইজারটি অয়েল বেইজ হলে আপনার স্কিনের জন্য ক্ষতিকর হবে।

 


স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া

স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া সব ধরনের স্কিনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তাই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। পুষ্টিকর খাদ্য খেলে আপনার ত্বকের যে কোন সমস্যা দূর করে আপনার ত্বককে দিবে ন্যাচারাল গ্লো। ত্বকের পুষ্টি যোগাতে স্বাস্থ্যকর খাদ্য বেছে নিন আর নিয়মিত আপনার খাদ্য তালিকায় পুষ্টিকর খাবার রাখুন দেখবেন অন্য কোনো রূপচর্চার প্রয়োজন হবে না।

 

তারকালয়/০২/১০/১৮/রুপা

Previous ArticleNext Article