সাজগোজ

কোকোয়া বাটার হেলদি ও সফট  স্কিনের জন্য! 

কোকোয়া বাটার তৈরি করা হয় কোকোয়া বীজ বা কফির বীজ থেকে। এটি প্রাকৃতিক ফ্যাট ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্টেস এ সম্পৃক্ত যা ত্বককে করে সফট ও ত্বকের সমস্যা দূর করে। কোকোয়া বাটার এর সাথে অন্যান্য আর কিছু উপকরণ মিলিয়ে নানা ধরনের স্কিন কেয়ার প্রডাক্টস তৈরি করা হয় যেমন বডি ক্রিম, বডি বাটার, লিপ বাম ইত্যাদি। শীতকালে ত্বক অনেক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যায়। তাই শীতকালে কোকোয়া বাটার ব্যবহার করলে ত্বকের রুক্ষতা দুর তো হবেই ত্বককে করবে হেলদি ও সফট 
 
 
 
 
কোকোয়া বাটার (বডি স্ক্রাব) : 
 
 
১/৮ কাপ কোকোয়া বাটার (মেল্ট করা) 
১/২ কাপ ব্রাউন সুগার  
৩ টেবিল চামচ কোকোয়া পাউডার  
৪ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল  
সামান্য এসেন্সিয়াল অয়েল অথবা দারুচিনি পাউডার সুগন্ধ পেতে (ঐচ্ছিক) 
 
সব কয়টি উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। 
এবার একটি কাঁচের বোতলে রেখে দিন। যখন প্রয়োজন হবে ব্যবহার করুন। গোসলের পূর্বে বডি স্ক্রাব করতে পারেন এই স্ক্রাবারটি দিয়ে। 
 


 
 
কোকোয়া বাটার (বডি বাটার) : 
 
 
১/২ কাপ কোকোয়া বাটার (মেল্ট করা) 
১/৪ কাপ সিয়া বাটার 
৩ টেবিল চামচ অ্যালমন্ড অয়েল  
১/২ টেবিল চামচ ভিটামিন ই অয়েল  
সামান্য দারুচিনি পাউডার (ঐচ্ছিক) 
 
 
সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর কাচের বয়ামে ভরে। ফ্রিজে রেখে দিন। এরপর প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করবেন। গোসলের পর ব্যবহার করলে আপনার ত্বকের শুষ্কতা ও রুক্ষতা দূর করে ত্বককে করবে সিল্কি ও সফট 
 
 
 

কোকোয়া বাটার ফেস ময়শ্চারাইজার : 
 
১/২ কাপ নারিকেল তেল  
১ টেবিল চামচ কোকোয়া বাটার  
২ টেবিল চামচ অ্যালমন্ড অয়েল  
৫ ফোঁটা লেভেন্ডার অয়েল  
 
 
একটি হুইপ এর সাহায্যে সবগুলো উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন যতক্ষণ না ক্রিমের আকার ধারণ করে। এরপর একটি কাঁচের পাত্রে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করবেন। মনে রাখবেন তৈলাক্ত ত্বকে ভুলেও ব্যবহার করবেন না। এছাড়া অন্যান্য ত্বকের ক্ষেত্রেও দিনে একবার অথবা ২ বার এর থেকে ব্যবহার করবেন না। কেননা এতে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট ও ফ্যাটি এসিড আছে। যা অতিরিক্ত ব্যবহারে ত্বক তৈলাক্ত হয়ে ব্রন ও অ্যাকনে দেখা দিতে পারে। 
 
 
তারকালয়/২৯/১১/১৮/রুপা 

Previous ArticleNext Article