Uncategorized, রেসিপি

দুধ পুলি পিঠার রেসিপি

ভীষণ মজার দুধ পুলি/ক্ষিরসা পুলি পিঠা। শীতের একটি বিশেষত্ব হলো এই টাইমে মজার মজার সব খাবারের আমাকে নিয়া যায় ,এবং তার মধ্যে আছে নানান ধরনের পিঠা ,আর সেসব পিঠার মধ্যে মজার একটি পিঠা হলো পিঠা পূলি । আর পিঠা পুলি শীত কালে যদি বাড়িতে বানিয়ে খাওয়া মজাই আলাদা। আর রেসিপি যদি হাতের কাছে থাকে তাহলে তো আর কোনো কথাই নাই। তাহলে আজকে আমরা জানবো কিভাবে বানিয়ে নিয়া যায় দুধ পুলি পিঠা।

▪এই পিঠা টা বানাতে যা যা উপকরণ প্রয়োজন পড়েছে–

পিঠার ডো বানাতে লাগবে- প্রথম ধাপ
১) ফ্রেশ চালের গুড়ি -১ কাপ
২) ময়দা -১/৮ কাপ
৩) লবন – স্বাদমত
৪) পানি- ১+১/৮ কাপ

পুরের জন্য যা লাগবে-
#  নারকেল কুচি – ১+১/২ কাপ
# খেজুর গুড়  – ১/২ কাপ
# চালের গুড়া- ১-২ চা চামচ
# লিকুইড মিল্ক- ১/২ কাপ
#এলাচ গুড়া- ১/২ চা চামচ
#ঘি বা তেল – ১-২ চা চামচ

প্রসেস-
পুর টা বানিয়ে চুলায় প্যান বসিয়ে এতে গুড় আর সাথে অল্প পানি দিয়ে মাঝারি আচে নেড়ে গুড়টা গলিয়ে নিন। গুড়টা গলে আসলে এর মধ্যে নারকেল গুড়ো  দিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিয়ে দুধের সাথে ১চা চামচ চালের গুড়া দিয়ে গুলিয়ে  নারকেলের মধ্যে  এড করে দিন আর বার বার নাড়তে থাকুন। দুধটা শুকিয়ে একটু আঠাল হয়ে এলে  এলাচ গুড়া দিয়ে মিশিয়ে ঘন ঘন নেড়ে দিন যখন মিশ্রণ টা আঠাল হয়ে আসে। মূলত মিশ্রনটি একত্র হয়ে প্যানের গায়ে দলা বেধে আসবে তখন ঘি দিয়ে মিলিয়ে নিয়ে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন।

• এবার পিঠার ডো বানানোর জন্য একটি পাত্রে পানি সাথে লবন ও চিনি দিয়ে ফুটতে দিন। পানি ফুটে ঊঠলে চুলার আচ একদম কমিয়ে দিয়ে চালের গুড়া,ময়দা ও নারকেল বাটা দিয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা কাঠি দিয়ে ভালো ভাবে নেড়ে মিলিয়ে কাই বানিয়ে কাইটা একটা ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৫-৭ মিন এর জন্য একদম লো হিটে রেখে দিন ময়দা টা ভালভাবে সেদ্ধ হবার জন্য।

৫ মিন পর ময়দার কাইটা একটা শুকনো স্পেস এ ঢেলে নিয়ে মোটা মুটি গরম অবস্থাতেই মেখে নিন মাখার আগের হাতে ভাল করে তেল মেখে তারপর ডো টা মাখবেন এভাবে ২,৩ হাতে তেল মেখে নিয়ে ডো টা খুব ভাল করে মথে একদম সফট করে নিন এ সময় একটু লেগে লেগে আসলে হাল্কা ময়দা ছিটিয়ে নিবেন।ডো টা মথা হলে একটা ভিজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন।ডো টা সফট আর স্মুথ হবে।

*পিঠা তৈরী মাঝের ধাপ–

•এবার আটার তৈরী কাই থেকে  পরিমান মত  কাই নিয়ে ছোট ছোট বল বানিয়ে নিন। আপনি যেই সাইজের বানাতে ইচ্ছুক, কিন্তু প্রকৃত পক্ষে পুলি পিঠা একটু ছোট আকারের হয়।

• এবার একটা করে বল নিয়ে আগে শুকনো চালের গুড়ায় গড়িয়ে হাতের দু আংগুলের সাহায্যে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে  ভিতরে মতো গর্ত করে নিয়ে পরিমানমত নারকেলের পুর দিয়ে মুখ বন্ধ করে ভালো করে আটকে নিয়ে শেপ টা ঠিক করে নিন।এভাবে করে সব পিঠা বানিয়ে নিন।আর পিঠাগুলো ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন।

পিঠা তেরীর শেষের ধাপ লাগবে-
*লিকুইড গরুর দুধ- ১+১/২ লিটার(দেড় লিটার)
•খেজুর গুড়- ১/২ কাপ
•চিনি-১/৪ কাপ( যদি লাগে)
•পানি-১/৩ কাপ।

প্রসেস–

প্রথমেই দুধটা মিডিয়াম  হিটে জ্বাল দিয়ে ঘন করে নিন। প্রায় ৩ কাপ মত করে নিতে হবে, দুধটা যতো ঘন হবে এই পিঠে টা ও ততো মজার হবে।(আরো  বেশি দুধ নিয়ে জ্বাল দিয়ে  ঘন করে নিলে দুধের মধ্যে হাল্কা ক্রিম একটা কালার আসে এতে পিঠের কালার খুব সুন্দর হয় আর মজাও হয়।)  দুধ ঘন হলে ঠান্ডা  হতে দিন।

▪ অন্য চুলায় হাড়িতে হাফ কাপ পানি র মধ্যে গুড় দিয়ে জাল করে গলিয়ে নিন আর মিশ্রন্টা ঠান্ডা করে নিন।

▪ গুড়ের পানিটা ঠান্ডা  হলে আগে থেকে ঘন করে রাখা ঠান্ডা দুধের মধ্যে ঢেলে দিয়ে আস্তে আস্তে নেড়ে মিশিয়ে নিন ।

•এবার দুধের শিরাটা চুলায় দিয়ে মিডিয়াম  হিটে জাল দিন দুধ টা যখন হাল্কা গরম হয়ে আসবে  তখন আস্তে আস্তে পুলি পিঠা গুলো দুধের মধ্যে দিয়ে অপেক্ষা করুন হাল্কা  একটু বুদবুদ আসা অব্ধি, বুদবুদ ভাবটা এলেই হাড়ি ধরে হাল্কা করে দুলিয়ে দিয়ে আচ কম করে ঢেকে দিন ১০-১৫ মিনিট এর জন্যে। মাঝে একবার হাল্কা করে নেড়ে দিবেন।১০-১৫ মিনিট পর পিঠা হলে নামিয়ে ঠান্ডা করে পরিবেসন করুন দারুন মজার দুধ পুলি পিঠা।

Previous ArticleNext Article