Uncategorized, সাজগোজ

ঘরে বসে চুল কালার করার উপায়

ঘরে বসেই চুল কালার করে ফেলুন। কোনো ঝামেলা এবং বাড়তি খরচ ছাড়াই চুলের কালার করে ফেলুন ঘরে বসেই। কি অবাক লাগছে ঘরে বসে, হেয়ার কলার! ঠাট্টা করেছে না তো??
মোটেও ঠাট্টা না। আপনিও চাইলে ঘরে বসে হেয়ার কালার করতে পারবেন,আর সেই ইনস্ট্রাকশন গুলো আজকে এই প্রতিবেদনের মধ্যে দিয়ে পেয়ে যাবেন যেভাবে করবেন, আর সাথে রইলো বেস্ট ৫টি কালার প্যাক!

আপনার চুলে রং খারাপ হয়ে যাচ্ছে? আপনার কি চুলে রং করানোর প্রয়োজন? তাহলে আপনার জন্য এই প্রতিবেদন। সবকিছুর মতো এই চুলেরও চর্চা দরকার । ঘন কালো রেশমি চুল আমাদের সবার পছন্দের জিনিস বটে। তবে আজকাল শুধু কালো রঙ নয় অন্যান্য রঙ ব্যবহার করা হয় চুলকে সুন্দর করে তোলার জন্য।
পার্লারে না গিয়ে বাড়িতে চুল রং করতে হলে কিছু বিশেষ টিপস আপনাকে মাথায় রাখতে হবে। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কি কি-

১.চুল রং করার আগে চুল পরিষ্কার আছে কিনা টা সুনিশ্চিত করা। সাধারণত ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা আগে চুলটি ভালো মত ধুয়ে নেবেন,যাতে কোন ময়লা চুলে না থাকে। তাহলে আপনার কালারটি সুন্দর হবে এবং আপনার স্ক্যাল্প অর্থাৎ চুলের গোড়া পরিষ্কার হয়ে যাবে ফলে রং দীর্ঘস্থায়ী হবে।

২. আপনার চুলের জন্য কোন রংটি সঠিক সেটা ভালোমতো বাছাই করে নিন। কারণ চুলের রঙ সঠিক না হলে, দেখতে ভালো লাগে না। আমাদের দেশে ব্রাউন এর বিভিন্ন শেড ব্যবহার করা হয়। এমনকি কালো রংটা অনেকেই করায় তাই বলে ব্লন্ডি কালার করালে সবাইকে মানাবে না।

৩. চুল রং করার আগে চিরুনি দিয়ে ভালো করে চুল আঁচড়ে নিন। নইলে আপনার চুলে যদি কোন জট থেকে যায় তাহলে কালার ভালো করে হবে না । কোথাও কম কোথাও বেশি রং হয়ে যাবে তখন বিশ্রী একটা কালারিং দেখা যাবে।

৪. সাধারণত কালার প্যাকেটে দুটো করে শ্যাসে দেওয়া থাকে। একটি কালার ও অন্যটি ডেভেলপার । আপনার প্যাকেটে তাওয়া নির্দেশ মতো দুটি উপাদান মিক্স করবেন আপনার কালার ব্রাশ দিয়ে।

৫. এতসব পরেও যে কাজটি বাকি থেকে যায়,সেটা হচ্ছে চুলে রং করা। চুলে রং করার জন্য তার আগে গলায় কাঁধে একটি কাপড় জ-ড়ি-য়ে নিন যাতে আপনার শরীর ঢেকে যায়।তারপর কপালে,গলার পিছনে ভেসলিন লাগিয়ে নিন, নাহলে আপনার ত্বকে রং লেগে যাবে। এরপর কপাল থেকে চুলের লাইনিং বরাবর রং করতে শুরু করুন। রং করার সময় নিজের মাথার কয়েকটি অংশ কল্পনা করে নিন এবং সেই অংশগুলোতে এক এক করে রং লাগাতে থাকুন।

৬. কালার করার পর প্যাকেটে লেখা ইন্সট্রাকশন অনুযায়ী চুল শুকোতে দিন। যদি কিছু লেখা না থাকে তাহলে অন্তত ২৫ মিনিট শাওয়ার ক্যাপ মাথায় লাগিয়ে রাখুন এতে আপনার চুলে সব জায়গায় ঠিকঠাক রং হয়ে যাবে।

৭. এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে আপনার মাথা ধুয়ে ফেলুন। খেয়াল রাখবেন যেন ভালো করে ধোয়া হয়। যদি অতিরিক্ত রং থেকে যায় তাহলে আপনার চুলে খুশ-কির স-ম-স্যা হতে পারে। ভালো করে ধুয়ে নেওয়ার পর কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

Previous ArticleNext Article