বিনোদন, সেলিব্রিটি বার্তা

মারভেল এর প্রথম মহিলা নেতৃত্বাধীন সুপারহিরো ছবি, “ক্যাপটেন মার্ভেল”

“ক্যাপটেন মার্ভেল ” মার্ভেল স্টুডিওর প্রথম মহিলা নেতৃত্বাধীন সুপারহিরো চলচ্চিত্র হিসাবে নেতৃত্বাধীন অতিমানবীয় চরিত্র। যা পরিচালনা করেন “অ্যানা বোডেন” এবং “রায়ান ফ্লেক”। চলচ্চিত্রটির বিকাশ ঘটেছিল ২০১৩ সালের প্রথম দিকে। এর গল্পটি নির্মিত হয় ১৯৯৫ সালের সময় এর উপর। যার পটভূমি ছিল ভিনগ্রহের দুটি সভ্যতার সংঘর্ষের মাঝে পৃথিবীর আটকে পড়া ও ড্যানভার্সের ক্যাপ্টেন মার্ভেল হয়ে উঠা নিয়ে। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে অক্টোবরে মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে চলচ্চিত্রটি ঘোষণা করা হয়।

এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন অনেক সদস্য কিন্তু বিশেষ অবদান ও ভূমিকা যারা কাজ করেছেন তারা হচ্ছে :

১. ব্রি লারসন (ক্যারল ডেনভার্স / ভিয়ার্স / ক্যাপ্টেন মার্ভেল)

২. স্যামুয়েল এল. জ্যাকসন (নিক ফিউরি)

৩. বেন মেন্ডেলসন (টেলস/কেলার)

৪. জিমোন হাউসুও (কোরাথ)

৫. লি পেস (রোনান দ্য একিউজার)

৬. লাশানা লিঞ্চ (মারিয়া রামবিয়্যু)

৭. জিমা চ্যান (মিন-ইরভা)

৮. অ্যানেট বেনিং (সুপ্রীম ইনটেলিজেন্স এবং মার-ভেল/ড: ওয়েন্ডী লউসন )

৯. ক্লার্ক গ্রেগ (ফিল কুলসন)

১০. জুড ল (ইয়ন-রগ) ইত্যাদি।

কাহিনী/গল্প (সংক্ষেপ) : ১৯৯৫ সালে, ক্রী সাম্রাজ্যের রাজধানী হালাতে স্টারফোর্স সদস্য ভিয়ার্স যিনি স্মৃতি শক্তি হারিয়ে ফেলেন এবং তিনি প্রতিনিয়ত একটি বৃদ্ধ মহিলাকে স্বপ্ন দেখেন।তিনি যার অধীনে কাজ করতেন তার পরামর্শদাতা ও নির্দেশক তাকে প্রশিক্ষণ দেয় কিভাবে তার দক্ষতাকে নিয়ন্ত্রণে রাখবে যখন সুপ্রিম ইন্টেলিজেনস কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকারীরা ক্রী নিয়ন্ত্রণ করে তাকে আক্রমণ করবে। স্ক্রাল এবং ক্রী যারা হচ্ছে এলিয়েন যাদের মধ্যে সম্রাজ্যের যুদ্ধ চলমান। যার কারণে স্ক্রাল সদস্যরা পৃথিবীতে গোপনে বসবাস করছে এবং গুপ্তচরদলের এক সদস্য ভিয়ার্সকে আটকে ফেলে কেননা তার মাধ্যমে স্ক্রাল কিছু তথ্য অনুসন্ধান করবে কিন্তু স্ক্রাল সদস্য বার্থ হয় কেননা ভিয়ার্স পালিয়ে যায় এবং সেখান থেকে পৃথিবীতে ল্যান্ড করে এবং সেখানে নিক ফিউরি সাথে দেখা হয় এবং পরবর্তীতে তার কল্পিত স্মৃতির স্পষ্টতা দেখতে পায় স্মৃতিগুলো ব্যবহার করে ভিয়ার্স এবং ফিউরি তার আসল পরিচয় বের করে এবং তার বন্ধু মারিয়া দেখা পায় এর পর লউসনের দ্বারা একটি রেকর্ডার পায় এবং তিনি উপলব্ধি করে তার শক্তি কত তীব্র এবং তিনি নতুন ক্যাপ্টেন মার্ভেল সে সম্পর্কে অবগত হয়। এরপর অনেক বার বার্থ হওয়ার পর ক্রি’র বোমারীকে ধ্বংস করে এবং ইয়ন রগকে পরাজিত করার জন্য ক্রি’র অফিসার রনান দ্যা একিউজার ও তার দলকে পশ্চাদপসারণ করতে বাধ্য করে তিনি বিজয়ী হয়। এবং স্ক্রাল এর জন্য একটি নতুন আবাসস্থল খোজার সহায়তা করতে প্রস্থান করে।

এই চলচ্চিত্রটিতে বুঝানো হয়েছে যে ,কখনো হাল ছেড়ে দেয়া উচিত নয় চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয় এবং সত্য ও ন্যায়বিচারে বিশ্বাসী ব্যক্তি জয় নির্ধারিত। এবং এই বার্তাটি দর্শকদের আকৃষ্ট করে এবং অনুপেরনা জাগায়।

এই চলচ্চিত্রটি এতটাই আলোড়ন সৃষ্টি করেছে যা বক্স অফিসে এর আয় বিশ্বব্যাপী ১.১২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার উর্ধে পৌঁছায়।

ক্যাপটেন মার্ভেল কে আমরা পরবর্তীতে আভেঞ্জারস এন্ডগেম এও দেখতে পাই। এবার ও চরিত্র টি “ব্রি লারসন” দ্বারা উপস্থাপিত হয়।

 

তারকালয়/২০/১০/২৯/রিয়া

Previous ArticleNext Article