Uncategorized, সাজগোজ

কয়েকটি সহজ উপায়ে মুলতানি মাটির ফেইস প্যাক।

রূপচর্চায় ব্যবহৃত হয়ে আসা অতি প্রাচীন কার্যকরী উপাদান হল মুলতানি মাটি। এটি ত্বকের জন্য খুব উপকারি একটি উপাদান। কারণ এতে আছে মিনারেলস যা ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করতে বেশ কার্যকরী এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি এর সাথে রোদে পোড়া ভাব দূর করতে সাহায্য করে।

শুধু ত্বককে ভেতর থেকে উজ্জ্বল করতে, টানটান করতে এর উপকারিতা যে টা নয় বরং ত্বকের অন্যান্য যেকোনো সমস্যায় কাজ করতে এই মাটির কোনো বিকল্প নেই। এমনকি ব্রণর সমস্যার একটি দারুন সমাধান হল মুলতানি মাটি। খুব সহজেই মুলতানি মাটির ফেস প্যাক বানানো যায়। তাহলে আজকে জেনে নিবো কিছু সহজ উপায়ে মুলতানি মাটির ফেইস প্যাক।

১. মুলতানি মাটি ও গোলাপজল :
তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এটি বেস্ট একটি প্যাক, একটু মুলতানি মাটি আর দুচামচ গোলাপজল ভালো করে মিশিয়ে পেস্ট বানান। তারপর সেটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট পর পরিষ্কার পানি ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু থেকে তিন দিন করতে পারেন। এতে অতিরিক্ত অয়েল কন্ট্রোল হবে।

২. মুলতানি মাটি, মধু ও পাকা পেঁপে :
একচামচ মুলতানি মাটি, একচামচ মধু ও একচামচ পাকা পেঁপের ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। তারপর মুখ আগে পরিষ্কার করে তারপর এটি লাগান। এবং শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। এরপর দেখবেন ত্বককে ভেতর থেকে উজ্জ্বল করে তুলেছে।

৩. মুলতানি মাটি, শসা ও গোলাপজল:
শুধু যে উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করা ত্বকের সুন্দর্যের প্রতীক , তা কিন্তু মোটেও নয়,ত্বকের সতেজ বা তরতাজা রাখা টাও অনেক জরুরী।
ত্বককে তরতাজা বানাতে, কয়েকটি শসার টুকরো, দুচামচ মুলতানি মাটি ও এবং পরিমাণ মত গোলাপজল ভালো করে মিশিয়ে ঘন পেস্ট বানান। তারপর সেটি মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ থেকে ২০ মিনিট , তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলুন। এটি একটি তরতাজা ভাব আনতে সাহায্য করবে।

৪. মুলতানি মাটি ও লেবু : ব্রণের দাগ নিয়ে চিন্তিত!তাহলে
একচামচ মুলতানি মাটি, ও একচামচ লেবুর রস আর একচামচ মধু মিশিয়ে এখনই পেস্ট বানিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ থেকে ২৫ মিনিট জন্য। এটি ত্বকের যেকোনো দাগ দূর করতে অত্যন্ত কার্যকরী। বিশেষত ব্রনর দাগ যেতেই চায় না। এক্ষেত্রে এই প্যাকটি খুবই কার্যকরী।

৫. মুলতানি মাটি, গাজর ও অলিভ তেল: ত্বকের পিগমেন্টেশন প্রবলেমে ভুগছেন!তাহলে জেনে নিন গাজর ত্বকের পিগমেনটেশন রোধে বিশেষ ভূমিকা নেয়। আর এর সঙ্গে মুলতানি মাটি যোগ হলে এর গুন কতোটা বৃদ্ধি পাবে ,ভেবে দেখেছেন!এর জন্য আগে গাজরের পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর গাজরের পেস্টের সঙ্গে মুলতানি মাটি, ও অলিভ তেল ভালো করে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট মত। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের পিগমেনটেশন রোধে বিশেষ সাহায্য করে। ভালো ফল পাবার জন্য এটি সপ্তাহে দুবার করুন।

৬. মুলতানি মাটি, পুদিনা ও দই:
ত্বকে ডার্ক প্যাচেস সত্যি খুব খারাপ লাগে। আর এই সমস্যা সমাধানে ব্যবহার করুন মুলতানি মাটি, পুদিনা ও দই এর প্যাক। একচামচ মুলতানি মাটি, একচামচ দই ও কয়েকটি পুদিনা পাতা দিয়ে ভালো করে পেস্ট বানিয়ে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। তারপর হালকা গরম জলে মুখ পরিষ্কার করে নিন। উপকার পাবেন।

মনে রাখবেন মুখে এ ধরনের প্যাক লাগিয়ে কখনোই কথা বলেন না ,কারণ এতে করে মুখের মধ্যে বলী রেখা ফেলে ,বা মুখের মধ্যে কথা বলার দরুন ভাঁজ তৈরি করে যা বয়সের ছাপ ফেলে দেয় ,তাই এ ব্যাপারটি মাথায় রাখবেন,আর
সপ্তাহে একবার করে আপনার হাতের কাছের উপাদান দিয়ে সাথে মুলতানি মাটি দিয়ে এই ফেইস প্যাক গুলো তৈরি করে ব্যবহার করবেন ,তাহলে নিজেই ত্বকের পরিবর্তন খুজে পাবেন এবং এভাবেই রেডিয়েন্ট লুক পাওয়া সম্ভব।

Previous ArticleNext Article