Uncategorized, রেসিপি

আলু পরোটার রেসিপি

আলু পরোটার কথা কে না শুনেছি! সাধারণ আবার খুব আসাধারণ একটি খাবার আলু পরোটা! খেতে যেমন মজাদার দেখতে তেমনই লোভনীয়। জিনিসটি দেখতে সাধারণ পরোটার মতোই।

অনেকে তো মনে করে শুধু আটা বা ময়দায় দিয়েই তৈরি করলেও পরোটা মজা হয়। কিন্তু আলু দিয়ে তৈরি আলু পরোটা , এটার স্বাদ টাই অন্যরকম। মাঝে মাঝেই আপনি এটিকে রাখতে পারেন আপনার সকালের বা বিকালের নাস্তায়।

Tarokaloy_aloo_paratha

খেতে অসাধারণ ও তৈরী করা সহজ বলে খুব বেশি সময়ও লাগে না আলু পরোটা প্রস্তুত করতে। বাচ্চাদের খাওয়ার বায়না দূর হওয়ার মতো একটি খাবার আলু পরোটা। তাহলে দেরি না করে এখনই
আসুন জেনে নেয়া যাক আলু পরোটার সহজ রেসিপিটিঃ

Tarokaloy_aloo_paratha

আলু পরোটা তৈরি করতে উপায় এবং উপকরণঃ
-আলু সিদ্ধ ২ কাপ
-ময়দা পরিমান মত
-ভাজা জিরাগুড়ো ১ চামচ
-ধনে পাতা কুচি ১ মুঠো
-৩ টি কাঁচা মরিচ কুচি
-লবন পরিমান মত
-তেল পরিমান মত
-ঘি পরিমান মত
-খাবার সোডা ১ চিমটি

প্রস্তুত প্রণালীঃ

Tarokaloy_aloo_paratha


*প্রথমে পরিমান মত ময়দা নিয়ে এতে সামান্য লবন, খাবার সোডা ও ৪ টেবিল চামচ তেল দিয়ে মিশিয়ে ময়ান দিয়ে রাখুন ,৩/৪ মিনিট জন্য

*অন্যদিকে , অন্য একটি পাত্রে সিদ্ধ করা আলু, সামান্য লবন, ধনে পাতা কুচি, কাঁচা মরিচ কুচি, ভাজা জিরা গুড়ো দিয়ে ভালো করে মেখে নিন ।

*এবার এতে অল্প অল্প করে ময়ান দেয়া ময়দা মিশিয়ে মাখতে থাকুন যতক্ষণ না বেশ শক্ত খামি হয় ।

*এবার খামিটি থেকে পরোটার জন্য ময়দা নিয়ে নিন । একটু মোটা করে পরোটা বেলে নিন ।

*একটি বাটিতে অর্ধেক অর্ধেক করে ঘি ও তেল মিশিয়ে রাখুন । এবার মাঝারি আঁচে ননস্টিক তাওয়া চুলায় বসিয়ে দিন, গরম হয়ে গেলে পরোটা দিয়ে প্রথমে এপিঠ-ওপিঠ করে একটু সেঁকে নিন ।

*পরিমান মত তেল ও ঘি এর মিশ্রন দিয়ে দুই পিঠ লালচে করে ভেজে তুলুন । আর হ্যাঁ এই পর্যায়ে চুলার আঁচ যেন কখনই খুব বেশি না হয় কারণ ঘি বেশি তাপে রান্না হলে সুগন্ধ একেবারেই নষ্ট হয়ে যায়।
ভাজা শেষ হলে খাবার জন্য পরিবেশন করুন।

এইতো তৈরি হয়ে গেল মজাদার একটু নাস্তা,যেত সকলের হোক অথবা বিকেলের,খাওয়ার জন্য বিশেষ ভূমিকা পালন করবে।

Previous ArticleNext Article