Uncategorized, রেসিপি

আজকের রেসিপি বেগুন বিরিয়ানি

কথায় বলে না, যার নেই কোনো গুণ তাকে বলে ‘বে — গুণ ‘। কোনো গুণ নেই একথাটা বলা কিন্তু ঠিক একদম ঠিক নয়। কারন বেগুনের রয়েছে অনেক গুণাগুণ,পুষ্টি এবং ভিটামিন — বেগুন ডায়বেটিস প্রতিরোধ করে, স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। এছাড়াও বেগুনের রয়েছে আরও অনেক গুণ। আর সবচেয়ে বড়ো বিষয় হলো এটি পাওয়া যায় সারা বছর দামেও অনেক সহজলভ্য। আর সব থেকে বড় কথা হলো বেগুন দিয়ে অনেক ধরনের আইটেম তৈরি করে খাওয়া যায়,যেমন বেগুন ভর্তা,বেগুনের ভাজি,বেগুনের তরকারি ।

tarokaloy_beguner_biriyani


অনেকেই আছেন যাদের বেগুন বেশ পছন্দের। মাছের ঝোল হোক বা সুক্তো সবেতে বেগুন তাদের লাগবেই। কিন্তু কখনো কি বেগুনের বিরিয়ানি খেয়েছেন? আজকে আমার রেসিপি নিয়ে এসেছি সেসব বেগুন প্রেমীদের জন্যঃ

বেগুন বিরিয়ানি তৈরি করতে যে হয়ে উপকরণ সমূহ ব্যবহার করতে হবে:

১/বেগুন (৬০০ গ্রাম)
২/দই (৩টে চামচ)
৩/লংকা গুঁড়ো (২ টে চামচ)
৪/জিরে গুঁড়ো (১ টে চামচ)
৫/গরমমশলা গুঁড়ো (১ চা চামচ)
৬/নারকেল কোড়ানো (১/২ কাপ)
৭/কাজু কুচি (পরিমানমতো)
৮/লবণ (পরিমানমতো )
৯/ঘি ( ৬টে চামচ)
১০/আদা বাটা ( ১ টে চামচ)
১১/রসুন বাটা (১ টে চামচ)
১২/বেরেস্তা (১ কাপ)
১৩/দুধে ভেজানো জাফরান (সামান্য)
১৪/বাসমতি চাল ( ২ কাপ)
১৫/কাঁচালংকা কুচি ( পরিমানমতো)
১৬/গোটা গরমমশলা ( পরিমানমতো)

tarokaloy_beguner_biriyani

বেগুন তৈরির প্রস্তুতি প্রণালী:

প্রথমে বেগুনের বোঁটা ফেলে দিতে হবে(চাইলে রেখেও দিতে পারেন) । এরপর বেগুনগুলোকে গোটা রেখে মাঝবরাবর দুবার কেটে দিতে হবে যাতে মশলা গুলো ভালোভাবে বেগুনের ভেতর ঢোকে।

একটি পাত্রে জল গরম করে তাতে গোটা গরমমশলা দিতে হবে। জল ফুটে উঠলে তাতে চাল দিতে হবে। চাল ৮০% সেদ্ধ হয়ে এলেই নামিয়ে ফেলতে হবে। চাল নামাবার সময় একে দুভাগে ভাগ করে রাখতে হবে।

এবার কেটে রাখা বেগুনগুলোতে একে একে দই, নুন, লংকা গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, গরমমশলা গুঁড়ো, কাজু, ৩টে চামচ ঘি, নারকেল, লংকা কুচি দিয়ে ভালো করে মেশাতে হবে। মেশানো হলে এটিকে ঘন্টাখানেক ফ্রিজে রেখে দিতে হবে।

এবার কড়াইতে তেল গরম করে এতে আদা-রসুন বাটা দিয়ে সামান্য নাড়াচাড়া করতে হবে। এরপর এতে মশলা মাখানো বেগুনগুলো দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে। কষানো হলে এটিকে এবার আলাদা করে রাখতে হবে।

এবার অন্য একটি কড়াই নিয়ে এতে বাকি ঘি নিয়ে ভালো করে কড়াইতে মেখে নিতে হবে। এরপর এতে অর্ধেক ভাত নিয়ে তার উপর কষানো বেগুন আর অর্ধেক বেরেস্তা দিয়ে বাকি ভাত দিতে হবে। ভাতের ওপর বাকি বেরেস্তা আর জাফরান দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এবার গ্যাসের অল্প আঁচে মিনিট ১৫ রান্না করতে হবে। হয়ে গেলে আরও ৫ মিনিট রেখে দিতে হবে।

সবশেষে রায়তা ও স্যালাডের বা আপনার পছন্দমতো অন্য কিছুর সাথে পরিবেশন করুন গরম গরম ‘বেগুন বিরিয়ানি ‘।

Previous ArticleNext Article