বিনোদন, সেলিব্রিটি বার্তা

অভিনয়কে বিদায় জানালেন অভিনেত্রী দীঘি!!

শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হিসেবে পর্দায় এসেছেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। একই ভূমিকায় কাজ করেছেন আরও কিছু ছবিতে। তবে এখনই বাধা পড়ছে তার অভিনয়ের। না, অভিনয় থেকে একেবারে সরছেন না তিনি। আপাতত কিছুদিনের বিরতি নিচ্ছেন। কারণ সামনেই তার এইচএসসি পরীক্ষা। দীঘির জানান, শুটিং শেষ করে আপাতত অভিনয় থেকে বিদায় নেবো। কারণ সামনে আমার এইচএসসি পরীক্ষা। আগামী ২ ডিসেম্বর থেকে পরীক্ষা শুরু, তাই এখন আর কোনও সিনেমার কাজ রাখিনি।

Tarokaloy_dighi

এই সময়টা শুধু পড়াশোনা নিয়েই থাকতে হবে। প্রস্তুতি ভালোভাবে নিতে চাই।’ বেশ কিছুদিন ‘শ্রাবণ জ্যোৎস্নায়’ সিনেমার শুটিংও করছেন তিনি। কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের উপন্যাস অবলম্বনে সরকারি অনুদানে এই সিনেমা হচ্ছে। যা নির্মাণ করছেন আবদুস সামাদ খোকন। কাজ চলছে ফরিদপুরে। চলতি মাসের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী নিয়ে নির্মিত ‘বঙ্গবন্ধু’র শুটিংয়ে একদিন কাজ করবেন।

Tarokaloy_dighi

এরপর এ বছর আর তাকে শুটিং ফ্লোরে দেখা যাবে না। একেবারে পড়াশোনায় মনোযোগ দেবেন দীঘি। পড়াশোনা ও কাজ প্রসঙ্গে দীঘি আরও বলেন, ‘পুরনো সিডিউলের কিছু কাজ ছিল, সেগুলোই এখন শেষ করতে হচ্ছে। এরমধ্যেই পড়াশোনাটা চলছে। ছোটবেলায়ও পরীক্ষার আগে এভাবেই প্রস্তুতি নিতাম। সেটে বসে পড়তাম। কারণ সে সময়ও নিয়মিত ছবিতে অভিনয় করতাম। তাই বিষয়টিতে আমি একেবারেই অভ্যস্ত।

Tarokaloy_dighi

ব্যক্তিগত জীবনে দীঘি চলচ্চিত্র পরিবারের সন্তান। তার বাবা সুব্রত বড়ুয়া চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং মা দোয়েল চলচ্চিত্র নায়িকা। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের আগে গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনে অভিনয় করে সকলের নজরে আসেন দিঘী। কাজী হায়াৎ পরিচালিত কাবুলিওয়ালা দিঘী অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র। এরমধ্যে শিশুশিল্পী হিসেবে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে কাজ করেন দীঘি।

Tarokaloy_dighi

এরপর কয়েকবছর বিরতি নেন ২০২১ সালে তুমি আছো তুমি নেই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রাপ্তবয়স্ক অভিনেত্রী হিসেবে পুনরায় চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। ২০১১ সালে দীঘির মা দোয়েল মারা যান। মায়ের স্বপ্ন ছিল দীঘি ডাক্তার হবে, সম্প্রতি সেই স্বপ্ন পূরনের লক্ষ্যে পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়ার জন্য চলচ্চিত্রে অভিনয় স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। বর্তমানে দীঘি উচ্চমাধ্যমিক পড়ছেন।

Previous ArticleNext Article